You are currently viewing উৎসাহ উদ্দীপনায় চুয়েটে সরস্বতী পূজা

উৎসাহ উদ্দীপনায় চুয়েটে সরস্বতী পূজা

  • Post published:February 6, 2022
  • Post comments:0 Comments

নাজমুল হাসানঃ

ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য আর ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় উৎসব বাণী অর্চনা, বিদ্যার দেবী শ্রী শ্রী সরস্বতী পূজা চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) উদযাপিত হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গনে কোনো মন্দির না থাকায় এবারে পূজা উদযাপন পরিষদ ক্যাম্পাসের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) পুজা মণ্ডপ স্থাপন করে। এই মন্ডপে সকাল ১০ টায় অঞ্জলি প্রদানের মাধ্যমে পূজার সুচনা হয়।

দুপুরে চুয়েট উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম মণ্ডপে আসেন। তিনি “বাক” নামক সাময়িকীর মোড়ক উন্মোচন করেন এবং পরে পুজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি ঋত্বিক মুরালের হাতে শ্রীমদভগবতগীতা তুলে দেন। উল্লেখ্য সরস্বতী পূজা উপলক্ষ্যে “বাক” নামক সাময়িকী প্রকাশ করে পূজা উদযাপন পরিষদ, চুয়েট। এতে চুয়েটের সনাতন ধর্মালম্বী প্রাক্তন ও বর্তমান শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় লেখাগুলো স্থান পেয়েছে।

এ সময় ঋত্বিক মুরাল বলেন, সরস্বতী পূজা সনাতন ধর্মাবলম্বী চুয়েটিয়ানদের প্রাণের উৎসব। চুয়েট পূজা উদযাপন পরিষদ প্রতিবছর এ আয়োজন করে থাকে। আমি উপাচার্য মহোদয়কে আমাদের আয়োজনে আসার জনা ধন্যবাদ জানাচ্ছি। পাশাপাশি চুয়েটে একটা মন্দির স্থাপন করার জন্য অনুরোধ করছি।

চুয়েট উপাচার্য তার বক্তব্যে বলেন, চুয়েট প্রশাসন ক্যাম্পাসে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। আমরাও ক্যাম্পাসের একটা মন্দির স্থাপনের চেষ্টা করছি।

দুপুর ১ টায় উপস্থিত সবার মাঝে প্রসাদ বিতরণ করে সংগঠনটি। শেষে সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করে তারা। এতে সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি সনাতন ধর্মালম্বী শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পরিবার পরিজনরাও উপস্থিত ছিলেন। আজ প্রতিমা বিসর্জনের মাধ্যমে আয়োজন আনুষ্ঠানিকতা শেষ হবে।

Leave a Reply