চুয়েটে পানি সম্পদ কৌশল বিভাগের ‘১৮ ব্যাচের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন

আসাদুল্লাহ গালিবঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর পানি সম্পদ কৌশল বিভাগ (ডব্লিউ আর ই) বিভাগের ‘১৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের বিদায় অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। আজ ২৩ মে (বৃহস্পতিবার) বিকাল চারটায় পুরকৌশল বিভাগের সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠানটি আয়োজিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এছাড়া আরো উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. জামাল উদ্দীন আহমেদ, পুরকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সুদীপ কুমার পাল এবং ছাত্রকল্যাণ দপ্তরের পরিচালক অধ্যাপক ড. মো. রেজাউল করিম ও ডব্লিউআরই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. জি.এম. সাদিকুল ইসলাম ।

উক্ত অনুষ্ঠানে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের মাঝে বিদায়ী স্মারক তুলে দেওয়া হয় এবং নবাগত প্রথম বর্ষের (২২-ব্যাচ) এর শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। এরপর এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় যেখানে শিক্ষার্থীরা সংগীত, নৃত্য ও নাটক প্রদর্শন করেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম চুয়েটের বিদায়ী শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, অনেক কিছুর স্বল্পতা থাকার পরও পানি সম্পদ কৌশল বিভাগের প্রথম ব্যাচ হিসেবে ২০১৮ ব্যাচের শিক্ষার্থীরা সত্যিই ভাগ্যবান। তাদের এই সফল পথচলা নতুন শিক্ষার্থীদের প্রেরণার উৎস হবে। একইসাথে তিনি নবীনদেরকে স্বাগত জানিয়ে তাদের সফল ভবিষ্যতের কামনা করেন।

ডব্লিউআরই বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. জি.এম. সাদিকুল ইসলাম তার বক্তব্যে নতুন শিক্ষার্থীদের জন্য পর্যাপ্ত ক্লাসরুমের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (বিডব্লিউডিবি) এ ৭৫-৮০% পানি সম্পদ কৌশল কোটার জন্য ইঞ্জিনিয়ারদের সম্মেলনে আহ্বান জানানো হয়েছে এবং বিসিএস পরীক্ষায় পানি সম্পদ কৌশল বিষয়ে সাবজেক্ট কোড যুক্ত করার ব্যাপারে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) বরাবর চিঠি দেওয়া হয়েছে।

বিদায়ী বর্ষের শিক্ষার্থী আরাফ বিন হক তার বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, ডিপার্টমেন্টের সব স্যার এবং বিশেষ করে আয়েশা ম্যাম ও সাদি স্যারের আন্তরিকতা ও সহযোগিতার কথা আমি আজীবন মনে রাখব।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে সিভিল এন্ড ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং নামে যাত্রা শুরু করলেও ২০১৮ সালে একে ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং এ রূপান্তরিত করা হয়। এবছর ওয়াটার রিসোর্সেস ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রথম ব্যাচ হিসেবে ১৮ আবর্তকে বিদায় দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *