ব্রেকিং নিউজ

১৮০০ প্রশিক্ষণার্থী নিয়ে সফলভাবে শেষ হলো অ্যাসরো ও থিংকরোবোর আরডুইনো প্রশিক্ষণ

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্ক:

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(চুয়েট)
রোবোটিকস ও মহাকাশ বিষয়ে গবেষণা সংগঠন Andromedra space and robotics research organization(ASRRO) এবং রোবোটিকস রিসার্চ অর্গানাইজেশন ও একাডেমি Think-ROBO এর যৌথ উদ্যোগে প্রায় ১৮০০ জনের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হলো ফ্রি অনলাইন আরডুইনো প্রশিক্ষণ।

রোবোটিকস গবেষণা সংগঠন ASRRO এর সাধারণ সম্পাদক জাহিদুস সেলিম বাঁধন জানান, আমরা আগামীতে তরুণদের প্রযুক্তি দক্ষতা উন্নয়নে বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের আরো সহযোগিতা ও অর্থায়ন আশা করি। তিনি আরও জানান, তরুণদের দক্ষতা উন্নয়নের মাধ্যমে তাদের চাহিদা পুরণে ASRRO কাজ করে যাবে।

কোর্সটি ১০ আগষ্ট হতে শুরু হয়ে ২০ আগস্ট পর্যন্ত চলে । ফ্রি এই কোর্সটিতে বেসিক হতে আরডুইনো ও এর প্রোগ্রামিং আলোচনা করা হয়। প্রতিটি মডিউলের শেষে নির্ধারিত কুইজ শেষ করার মাধ্যমে কোর্স শেষে দেয়া হয় সার্টিফিকেট। এছাড়া যেসকল প্রশিক্ষণার্থী ১০ দিন নিয়মিত মডিউল কমপ্লিট করে এসাইনমেন্ট জমা দিয়েছিলো তাদের নিয়ে গঠিত হয় SAL(সুপার আকটিভ লার্নার)।যারা SAL এ সিলেক্টেড তাদের আরডুইনো নিয়ে আরও স্পেশাল কিছু সাপোর্ট দেয়া হচ্ছে। মাত্র দশ দিন প্রতিদিন ১ ঘন্টার সময় ব্যয়ে একদম শুরুর লেভেলের যে কেউ আরডুইনো এর প্রাথমিক দক্ষতা অর্জন করতে পেরেছে। এই কোর্সে মোট ৮ টি মডিউলে ২৪ ভিডিয়োর সমন্বয়ে আরডুইনোর বেসিক কোডিং শিখানো হয়।

মডিউলগুলো হচ্ছে –
Module 1 – Introduction
Module 2 – Get started with programming
Module 3 – digital and analog input receive
Module 4 – Let’s learn about condition
Module 5 – Let’s learn about loop
Module 6 – How to use array
Module 7 – all about LCD display
Module 8 – How to code Servo Motor

এই কোর্সের জন্য কি কি লেগেছিলো এমন প্রশ্নের জবাবে আয়োজকরা বলেন, কোর্সটি করার জন্য শুধু একটি ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ দরকার ছিলো। আমরা সবগুলো আরডুইনো প্রজেক্ট অনলাইনে সিমুলেশন করে শিখিয়েছি৷ তাই আপাতত আরডুইনোসহ যাবতীয় কিছুই কেনার প্রয়োজন পড়ে নি।

আয়োজিত আরডুইনো প্রোগ্রামিং কোর্সে শিক্ষার্থী ও তরুণদের পক্ষ হতে বিপুল সাড়া মিলেছে বলে জানান থিংক রোবোর প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মৃন্ময় মোদক। তিনি জানান, এবার প্রায় ১৮০০ প্রশিক্ষনার্থী রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করেছিলো। শিক্ষার্থীদের বিপুল সাড়ায় আমরা অভিভূত। এই সাড়া প্রযুক্তি শিক্ষা ও স্কিল ডেভেলপমেন্টে তরুণ প্রজন্মের বিপুল আগ্রহেরই জানান দেয়।