ব্রেকিং নিউজ

রোবটচর্চায় বিউবিটির তড়িৎকৌশলের ছেলেরা

bubt

লিখেছেন সায়েদুল মোরসালিন//

ফ্যাক্টরির চার দেওয়ালের মধ্যে আটকা পড়ে আছে অসংখ্য শ্রমিক। কালো ধোঁয়ায় আটকে আছে তাদের চিতকার । লেলীহান শিখায় ওষ্ঠাগত প্রাণ।    দমকল বাহিনী পৌছাতে অনেক দেরি ।  হঠাৎ দেবদূতের মত ঘটনাস্থলে আবির্ভূত হয় কিছু যন্ত্রযান । আগুনকে অপসারন করে দ্রুততার সাথে উদ্ধার করে সেই মৃতপ্রায় মানুষগুলোকে । কল্পনা নয়, বাস্তবে সেই যন্ত্রযান  নিমার্ণে  কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজি (বিউবিটি) এর তড়িৎকৌশল বিভাগটি । ২০১০  সালের জুন মাস থেকে যাত্রা শুরু করে এই বিভাগটি ।
বিভাগটির ল্যাবে গিয়ে দেখা যায়, রোবট বানানোয় ব্যস্ত সালসেং, হিমাংশু, রাহাত,রকিব, মাজেদরা । জিজ্ঞাসা করলে তাঁরা জানান, ২০১২ সালের নভেম্বর মাসে সংগঠিত তাজরিন ফ্যাশনের আগুনে প্রায় দেড়শতাধিক মানুষ অগ্নিদগ্ধ হয় । আর সেই দিনের নির্মমতাই, রোবট বানানোকে তাঁদের নেশায় পরিনত করেছে। বিভাগটির ইলেকট্রনিক্স ল্যাবে দেখা যায়, ‘ম্যাজ র‌্যানার’ রোবটটির সাথে গেম খেলছে আহসানুর, মামুন ও মাহফুজ । তাঁরা জানান , তাঁদের বানানো এই রোবটটি অত্যন্ত দক্ষতার সাথে চৌকষ খেলোয়াড়ের মত নির্ভুলভাবে বিভিন্ন গোলকধাধার সমাধান করছে , যা সামনাসামনি দেখলে কিছুটা অবাক হতে হয় ।
জাতীয় পর্যায়ে বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় এই বিভাগটির সফলতাও কম নয়। সফলতা হিসেবে গত ৫ মে, ২০১৪ সালে চট্টগ্রাম প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত আরএমএ (জগঅ) রোবো দৌড় প্রতিযোগিতায় বিভাগটি চ্যাম্পিয়ন হয় । বিভাগটির ‘সাইবারট্রন’ দলটির স্কেলেট্রন-২ রোবটটি ১৪ টি বিশ্ববিদ্যিালয়ের ৬৪ টি দলের সাথে প্রতিযোগিতা করে প্রথম স্থান অধিকার করে। ‘লাইন ফলোয়ার’  এই রোবটটি নির্দিষ্ট ট্র্যাক অনুসরণ করে ঝুড়িতে বল রাখার জন্য সময় নেয় মাত্র ২ মিনিট ১৭ সেকেন্ড। ইতিমধ্যে তড়িৎকৌশলের ছেলেরা তৈরি করেছে রুয়েটে অনুষ্ঠিতব্য রোবো দৌড়প্রতিযোগিতার জন্য মিনিওন ,অপ্টিমাস-২, এনডেবার নামক বিভিন্ন লাইন ট্র্যাকার রোবট ।
তাঁদের রোবটচর্চা সম্পর্কে তৃতীয়বর্ষের শিক্ষাথী রকিব রায়হান বলেন, শিক্ষকদের সুনিপুণ নির্দেশনা এবং নিজেেেদর পরিশ্রম ও সৃষ্টিকর্তার উপর বিশ্বাসেই আমাদেরকে এই রোবটচর্চায় অনুপ্রেরনায় যোগিয়েছে। রোবটগুেেলা তৈরি করতে আমাদেরকে ব্যবহার করতে হয়েছে বিভিন্ন রকম সেন্সর, মোটর ড্রাইভার, মাইক্রেকন্ট্রোলার এবং নির্ভুল প্রোগামিং । যন্ত্রগলোতে গড়ে খরচ হয়েছে দুই-তিনহাজার টাকা যা তুলনামূলকভাবে কম ব্যয়সাপেক্ষ ব্যাপার । শিক্ষার্থীদের মধ্যে রোবটনির্মাণ চর্চার এই মানসিকতা দেখে বিভাগীয় প্রধান, মো. মাইনউদ্দিন বলেন, শিক্ষার্থীদের একনিষ্ঠ পরিশ্রম ও প্রচেষ্টা তাদেরকে সফলকাম করে তুলছে । তাঁদের এই প্রচেষ্ঠা একদিন দেশ ও জাতির জন্য সুনাম বয়ে আনবে ।

তারিখ- 25/3/2015