ব্রেকিং নিউজ

মেহেরিনের চিকিৎসা সহায়তায় চুয়েটে ASME এর উদ্যোগে ক্যাড প্রতিযোগিতার আয়োজন

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্ক:

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) গবেষণাভিত্তিক সংগঠন আমেরিকান সোসাইটি অব মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারস (ASME) স্টুডেন্ট চ্যাপ্টার কর্তৃক আয়োজিত আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় ক্যাড প্রতিযোগিতা “এক্সট্রুশন” সম্পন্ন হয়েছে। যা থেকে প্রাপ্ত অর্থ সরাসরি মেহেরিনের নামক এক মেয়ের কিডনি জটিলতার চিকিৎসার জন্য অনুদান করা হয়েছে। গত ২৪ জুলাই সম্পন্ন হওয়া এই প্রতিযোগিতার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে গত ২রা আগস্ট (রবিবার)।

মোট আড়াই ঘণ্টার এই প্রতিযোগিতায় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৯১ জন অংশগ্রহণ করেন এবং তাদের ক্যাড দক্ষতা প্রদর্শন করেন। ডিজাইনগুলোকে কিছু নির্দিষ্ট মাপকাঠিতে বিচার করা হয়।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীরা হলেন আকাশ আহমেদ (চ্যাম্পিয়ন), আব্দুল্লাহ আরাফাত (২য় পুরষ্কার), আসিফ আহমেদ (৩য় পুরষ্কার)। তারা সবাই কুয়েট এর শিক্ষার্থী।

প্রতিযোগীতার বিচারক হিসেবে ছিলেন সৌরভ পাল (প্রভাষক, যন্ত্রকৌশল বিভাগ, চুয়েট), মাকসুদুল আলম (প্রভাষক, সিটি ইউনিভার্সিটি), মোঃ সাকিব রাহি (সাবেক সভাপতি, এএসএমই আইইএম ইন্ডিয়া প্যাসিফিক)।

প্রতিযোগিতার ব্যাপারে সংগঠনটির সহ-সভাপতি মোঃ মাহাদী হাসান বলেন, “কার্যকরী কমিটি হিসেবে আমরা ফান্ড রেইজিং এর জন্যে এই প্রতিযোগীতা আয়োজন করেছি। এতে চুয়েটসহ দেশের ১৩ টি স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করছে। প্রতিযোগিতার রেজিষ্ট্রেশন বাবদ অর্থ আমরা ইতোমধ্যে মেহেরিনের বাবার হাতে টাকা তুলে সোর্পদ করেছি এবং বিজয়ীরাও তাদের পুরষ্কারের অর্থ প্রদান করেছেন। আমরা সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি আমাদের সাথে থাকার জন্যে। প্রতিযোগীতাটি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করায় আমরা বেশ সন্তুষ্ট।”

উল্লেখ্য: মেহেরিন ইসলাম হাজী মোহাম্মদ মহসীন কলেজের শিক্ষার্থী। তার চুয়েটে পড়ার সুযোগ হয়েছিল। কিন্তু ভর্তির হবার ঠিক কয়েকদিন আগে তার জীবনে নেমে আসে এক ভয়াবহ দূর্যোগ । বিশ্ববিদ্যালয়ের সিড়িতে পা ফেলার ঠিক কয়েকদিন আগে তার স্বপ্ন থমকে যায় কিডনি ফেইলিউর-এর কাছে। তার দুটো কিডনিই স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক ছোট। কিডনি জটিলতায় আক্রান্ত হওয়ায় তার জীবন আজ সংকটাপন্ন। সবকিছু মিলিয়ে প্রায় ৪০ লাখ টাকা খরচ হবে তার চিকিৎসা বাবদ। ইতোমধ্যে তার বাবা একটা কিডনি দান করবেন বলে খবর পাওয়া গেছে।