ব্রেকিং নিউজ

নিরাপত্তার দাবিতে চুয়েট শিক্ষার্থীদের কাপ্তাই সড়ক অবরোধ

received_798986616954537

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্কঃ

গত ৩১ ডিসেম্বর রাউজান উপজেলার গশ্চি এলাকার দমদমা নামক স্থানে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম ছিনতাইয়ের শিকার হন । এ ঘটনার প্রতিবাদে এবং সড়কে নিরাপত্তার দাবিতে গত ২ জানুয়ারি সন্ধ্যায় কাপ্তাই সড়ক অবরোধ করে চুয়েটের সাধারণ শিক্ষার্থীরা । ফলে রাস্তার দু পাশে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয় ।

প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীদের বরাতে জানা যায় , অস্ত্রের মুখে চুয়েট শিক্ষার্থীর ছিনতাইয়ে শিকার হওয়ার প্রতিবাদে সন্ধ্যা সাড়ে পাঁচটা নাগাদ শিক্ষার্থীরা টায়ার জ্বালিয়ে সড়ক অবরোধ করে এবং ১৫ টি সিএনজি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে আটকে রাখে । পরে রাত সাতটায় ঘটনাস্থলে কিছু স্থানীয় লোকজন অতর্কিত হামলা চালালে দু পক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে ।এতে সামান্য আহত হন চুয়েটের তিন শিক্ষার্থী । এ সময় উত্তেজিত শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে অবস্থানরত সিএনজি ভাংচুর করে এবং সড়কে অবস্থান নেয় । একই সময় সড়কে অবস্থানরত ৩ টি ট্রাক ও ২ টি বাস ভাংচুরেরও খবর পাওয়া যায় । পরিস্থিতি সামাল দিতে রাউজান থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন এবং পরিস্থিতি অনুকূলে আনতে শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের সাথে আলোচনায় বসেন । পরবর্তীতে পরিস্থিতি শান্ত হয় এবং যান চলাচল স্বাভাবিক হয় ।

এ ব্যাপারে রাউজান উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা শামীম হোসেন বলেন, দু পক্ষের ভুল বুঝাবুঝিতে এ ঘটনা ঘটে । ঘটনায় ১৫ টি সিএনজি, ৩টি ট্রাক ও ২টি বাস ভাংচুর হয় ।আশা করি দু পক্ষের সাথে আলোচনার মাধ্যমে ঘটনাটির একটি সুষ্ঠু সমাধান আমরা দিতে পারব ।

ছাত্রকল্যাণ উপপরিচালক জি এম সাদিকুল ইসলাম বলেন , চুয়েট দেশের একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান । সেরা ছাত্রদের অন্যতম বিদ্যাপীঠ এ প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন শহরে চলাচলের জন্য শিক্ষার্থীরা কাপ্তাই সড়কের উপর নির্ভরশীল । তাই প্রশাসন ও পুলিশের উচিত এ সড়কে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ।

তিনি আরও বলেন ,সড়কে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে প্রশাসনের কাছে আমরা কিছু দাবি জানিয়েছি । দাবিগুলো হল , সিএনজির ভাড়া নির্ধারণ করে দিতে হবে , সিএনজিতে ভাড়ার তালিকা ও অভিযোগ নম্বর থাকতে হবে এবং পুলিশের নজরদারী বৃদ্ধি করতে হবে যাতে এ ধরনের ছিনতাইয়ের ঘটনা না ঘটে । দাবিগুলো প্রশাসন ইতিবাচকভাবে দেখেছে এবং পূরণে আশ্বাস দিয়েছে ।

ছিনতাইয়ের শিকার আরিফুল ইসলাম চুয়েটনিউজকে জানান ,৩১ ডিসেম্বর রাত ১১ টায় কাপ্তাই রাস্তার মাথা থেকে সিএনজির মাধ্যমে চুয়েট ক্যাম্পাসে ফিরে আসার সময় দমদমা বাজারের একটু সামনে পৌঁছালে ড্রাইভার হঠাৎ গাড়ি সাইড করে । তখন পাশের সিটে যাত্রী সেজে বসা দুই সহযোগীসহ ড্রাইভার আমার গলায় ছুরি ধরে এবং সঙ্গে থাকা দুটি ফোন ও টাকা-পয়সা কেড়ে নেয় । তবে গলায় হালকা জখম ছাড়া কোন ধরনের শারীরিক ক্ষতি হয়নি ।

তারিখঃ ০৩ /০১/২০১৮ ইং