ব্রেকিং নিউজ

জমজমাট কনসার্টের মধ্য দিয়ে পর্দা নামলো শিক্ষা সমাপনী উৎসবের

রাফাত হাসান দিগন্তঃ

মনোমুগ্ধকর আয়োজন ও জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে শেষ হলো চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ’১৩ ব্যাচের (৪৪তম ব্যাচ) শিক্ষা সমাপনী উৎসব। ‘একত্রয় র‍্যাগ-২০১৮’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপী এ উৎসবের সূচনা ঘটে গত ২৬ এপ্রিল। ‘প্রাণবন্ত উপাখ্যানে, একত্রয় চিরন্তনে’ শিরোনামের উৎসবটিতে শিক্ষার্থী ও সর্বসাধারণের অংশগ্রহণে প্রাণের সঞ্চার হয়েছে পুরো ক্যাম্পাসে।

শেষদিন বিকেল থেকে চুয়েটের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে ওয়ারফেজ, আরবোভাইরাস, মেকানিক্স, তীরন্দাজসহ বেশ কয়েকটি খ্যাতিনামা ব্যান্ড দল আসর জমায়। রাত পেরিয়ে সকাল পর্যন্ত চলা এ কনসার্টে একের পর এক জনপ্রিয় গান গেয়ে পুরো ক্যাম্পাস মাতিয়ে তোলেন ভোকালরা। সুরের মূর্ছনায় সমাপ্তি ঘটে চুয়েটের তিনদিনের এ জমকালো অনুষ্ঠানমালার।

এর আগে প্রথম দিন বৃহস্পতিবার সকাল এগারোটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রার মাধ্যমে এ উৎসবের যাত্রা শুরু হয়। অতঃপর গোলচত্বর সংলগ্ন বাস্কেটবল মাঠে কেক কেটে এবং বেলুন উড়িয়ে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড মোহাম্মদ রফিকুল আলম। এছাড়াও বেলা ১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চট্টগ্রাম নগরের জামালখান মোড় থেকে চেরাগী মোড় পর্যন্ত দ্বিতীয় আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বিকেলে রঙ উৎসব, ফ্ল্যাশ মব এবং সন্ধ্যায় ডিজে পার্টির মাধ্যমে প্রথম দিনের আয়োজনের সমাপ্তি হয়।

উৎসবের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে ইমতিয়াজ আহমেদ বিজন পরিচালিত ‘মাটির প্রজার দেশে’ চলচ্চিত্রটি প্রদর্শিত হয়। দুপুরের পর সন্ধ্যায় চুয়েটের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়। চুয়েটের কেন্দ্রীয় মাঠে এ অনুষ্ঠান চলে মধ্য রাত অবধি।

গতকাল উৎসবের সমাপণী দিনে নানা আয়োজনের সাথে আড্ডা ও স্মৃতিচারণের মাধ্যমে দারুণভাবে সময় পার করেন বিদায়ী ব্যাচের শিক্ষার্থীরা। চার বছরের এ পথচলার উপাখ্যানকে চিরঞ্জীবী করতেই যেন তারা আয়োজনে পসরা সাজিয়ে তুলেছিল।

স্থাপত্য বিভাগের শিক্ষার্থী রাহেলা তাবাসসুম বলেন, বিদায় অনুষ্ঠান বরাবরই কষ্টের হয়ে থাকে। তবে এমন সময় সবাইকে একসঙ্গে পেয়ে অত্যন্ত ভালো লাগছে।

যন্ত্রকৌশল বিভাগের বিদায়ী বর্ষের শিক্ষার্থী ত্রয়ী সাহা বলেন, অনুষ্ঠানটির মাধ্যমে একাত্রয়ের মধ্যকার বন্ধন আরও দৃঢ় হল। এমন আয়োজন আমাদের বন্ধুত্বকে দীর্ঘায়ত করতে অনুপ্রাণিত করবে।

চুয়েটের র‍্যাগ কমিটির আহবায়ক মোঃ এনফেরাদ চৌধুরী বলেন,এবারের র‍্যাগে আমরা দৃষ্টিনন্দন দেয়াললিখন, সুবৃহৎ আলপনাসহ অনেক নতুনত্ব উপহার দিতে চেষ্টা করেছি। সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমেই এ র‍্যাগ পূর্ণতা পেয়েছে।

তারিখঃ ২৯/০৪/২০১৮ ইং