ব্রেকিং নিউজ

চুয়েট ভর্তি পরীক্ষা আগামীকালঃ চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি


চুয়েটনিউজ২৪ ডেস্কঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক পর্যায়ের ভর্তি পরীক্ষা আগামীকাল অনুষ্ঠিত হবে । এ উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভর্তিচ্ছু পরিক্ষার্থীরা চুয়েটে চলে আসতে শুরু করেছেন। আগামীকাল ‘ক’ গ্রুপের ভর্তি পরীক্ষা সকাল ১০ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত এবং ‘খ’ গ্রুপে ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের মুক্তহস্ত অঙ্কন বিকাল ২:৩০ টা থেকে ৪:৩০ টা পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে । লিখিত পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত এবারের ভর্তি পরীক্ষায় থাকছে না কোন এম সি কিউ । ভর্তি পরীক্ষার্থীদের আসন বিন্যাস এবং অংশগ্রহনের নিয়মাবলীসহ সকল তথ্য চুয়েটের ওয়েবসাইটে (http://www.cuet.ac.bd/admission অথবা http://student.cuet.ac.bd/admission2018 ) প্রকাশ করা হয়েছে। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় ‘ক’ ও ‘খ’ গ্রুপে মোট ৮৩০ টি আসনের বিপরীতে অংশ নিচ্ছেন ৮৩৪২ জন পরীক্ষার্থী।

ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের আগে এসে থাকার সুবিধার্থে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হলগুলোতে কয়েকটি গণরুমে থাকার সুযোগ করা হয়েছে। এছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা তাদের রুমগুলোতে দেশের দূর-দূরান্ত থেকে আগত পরীক্ষার্থী ও অভিভাবকদের থাকার ব্যবস্থা করছেন। পরিক্ষার্থীদের বিভিন্ন তথ্য দিয়ে সাহায্য করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের গোলচত্বর সংলগ্ন এলাকায় বিভিন্ন সংগঠনের স্টল স্থাপন করা হয়েছে। পরীক্ষার্থীদের চুয়েটে পৌছে দেয়া ও থাকার সুবিধা করে দেওয়ার জন্য এগিয়ে এসেছে চুয়েট ছাত্রলীগও। তারা চট্টগ্রাম শহরের আটটি স্থানে (রেলস্টেশন-কদমতলী,এ কে খান,গরীবুল্লাহ শাহ মাজার,জিইসি,অক্সিজেন,বহদ্দারহাট,কাপ্তাই রাস্তার মাথা,কুয়াইশ রাস্তার মাথা) ছাত্রলীগের স্বেচ্ছাসেবক দল স্থাপন করেছে।

ভর্তি পরীক্ষা উপলক্ষে গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের পশ্চিম গ্যালারী সকল সংগঠনের প্রতিনিধিদের সাথে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।
মতবিনিময় সভায় চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ডঃ মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, যেহেতু সামনে নির্বাচন, তাই আমরা নিরাপত্তা নিয়ে সম্পূর্ন সচেতন। কোনো ধরনের সন্ত্রাসী গোষ্ঠী যেন কোনো সমস্যা সৃষ্টি না করতে পারে এজন্য আমরা সতর্ক রয়েছি। ভর্তি পরীক্ষার দিন ক্যাম্পাসে প্রায় ৪০০ পুলিশ মোতায়েন থাকবে । এছাড়া আমরা সকলকেই এদিন মেটাল ডিটেক্টর এর মাধ্যমে চেক করে প্রবেশ করাবো।

তিনি আরো বলেন, ছাত্রছাত্রীরা তাদের পছন্দের ক্ষেত্রে বুয়েটের পরেই চুয়েটকে প্রাধান্য দেয়। আমরা যেন আমাদের এ সুনাম ধরে রাখতে পারি এ বিষয়ে আমাদের সবাইকে সচেষ্ট থাকতে হবে। এদিন ছাত্রছাত্রী অভিভাবক সহ প্রায় ১৮ হাজার লোকের সমাগম হতে পারে। তাই তাদের সকল ধরনের সাহায্য সহযোগীতা করার জন্য তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের আহ্বান জানান।

তারিখঃ ১/১১/২০১৮ ইং।