ব্রেকিং নিউজ

চুয়েটে ভার্চুয়াল ওয়েবিনারে “আইইইই ডে-২০২০” উৎযাপন

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্ক:

করোনা মহামারীর মধ্যেও থেমে নেই বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের সহশিক্ষা কার্যক্রমগুলো। সেই ধারাবাহিকতায় সফলভাবে শেষ হলো চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) এর আইইই ব্রাঞ্চের বিভিন্ন কার্যক্রম।পরপর দুটি সফল কেস কম্পিটিশন ও ওয়েবিনার সিরিজ আয়োজনের মাধ্যমে ভার্চুয়ালে সফল ভাবে আইইই ডে উদযাপন করেছে আইইইই স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ চুয়েট।

প্রতিবারের চেয়ে কিছুটা ভিন্ন আঙ্গিকে ৬ই অক্টোবর আইইইই চুয়েট স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ আয়োজন করে ভার্চুয়াল “আইইইই ডে-২০২০”।

সপ্তাহব্যাপী উদযাপিত প্রোগ্রামটি শুরু হয় ৩০ সেপ্টেম্বর। লাইভ সেশনে আইইইই স্টুডেন্ট মেম্বারশিপ বেনেফিটস,ইন্ট্রা আর্টিকেল রাইটিং কম্পিটিশন এবং ইন্টার পোস্টার প্রেজেন্ট্রশন কম্পিটিশন নামক তিনটি প্রতিযোগিতার মাধ্যমে এবারের আসর জমে উঠে।

রাইটিং এর ক্ষেত্রে ৩৪ টি থেকে বাছাইকৃত সেরা আর্টিকেল গুলো স্থান পেতে যাচ্ছে আইইইই চুয়েট ম্যাগাজিনে। অন্যদিকে পোস্টার প্রেজেন্টেশন প্রতিযোগিতা দুই ধাপে সম্পন্ন হয়।

রেজিস্ট্রেশন কৃত ২৯ টি টিম থেকে ১১টিকে নির্বাচন করে ফাইনাল প্রতিযোগিতার জন্য বাছাই করা হয়।গ্র্যান্ড ফিনালের পর্দা ওঠে ৬ই অক্টোবর। সন্ধ্যা ৭ টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত চলমান এই প্রোগ্রামটি অনলাইনে সম্পন্ন হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন চুয়েটের ভিসি অধ্যাপক ড. মো. রফিকুল আলম।তিনি বলেন “এই করোনার মধ্যে আইইই চুয়েট স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চ আইইই ডে পালন করছে এটা অনেক প্রশংসনীয়”।
আইইই এর এডভাইসর ও চুয়েটের অধ্যাপক ড. মো. মশিউল হক বলেন “এই ধরণের অনুষ্ঠান এই মহামারীর সময়ে শিক্ষার্থীদের অলসভাবে না কাটিয়ে উপযুক্ত ভাবে সময়কে কাজে লাগাতে ব্যাপক ভূমিকা পালন করছে”।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক কৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড নূর মোহাম্মদ , কম্পিউটার কৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক লামিয়া আলম, ইইই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক নকিব সাদ পাঠান।

অনুষ্ঠানে কিনোট স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সুয়োগ ভিয়াওয়াহারে (ভাইস চেয়ার,আইইইই ইয়াং প্রফেশনালস এফিনিটি গ্রুপ,বোম্বে সেকশন)। আইইইই তে যুক্ত হওয়ার বিভিন্ন উপকারিতা ও ভবিষ্যতে উচ্চ শিক্ষায় আইইইই শিক্ষার্থীদের কীভাবে সহযোগিতা করবে,টেকনিক্যাল ফিল্ডে আইইইই-র অবদান- এসব খুঁটিনাটি বিষয় তুলে ধরার মাধ্যমে একটি সফল ইন্টারেক্টিভ লাইভ সেশন পরিচালনা করেন।

বাছাইকৃত ১১ টি টিমই উপস্থিত থেকে নিজেদের প্রেজেন্টেশন দেয়।প্রত্যেক প্রেজেন্টেশন এর জন্য নির্ধারিত সময় ছিল ৪ মিনিট এবং প্রেজেন্টেশন শেষে বিচারকমন্ডলীর প্রশ্নের সম্মুখীন হয়।এতে চ্যাম্পিয়ন হিসেবে নির্বাচিত হয় – টিম ইকো মিনিয়ন্স(চুয়েট), রানার্স আপ – টিম রেডিয়েশন এবং স্পেশাল মেনশন পায় টিম সলো। চ্যাম্পিয়ন ও রানার্স আপ টিমকে প্রাইজমানি প্রদান করা হয়।সকল টিমের প্রেজেন্টেশন শেষে অতিথিদের বক্তব্যের মাধ্যমে অনুষ্ঠান শেষ হয়।

বক্তব্যে আইইইই চুয়েট স্টুডেন্ট ব্রাঞ্চের কাউন্সিলর এবং চুয়েটের ইইই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. নূর মোহাম্মদ প্রোগ্রাম আয়োজনের জন্য আইইইই চুয়েট ব্রাঞ্চকে বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মাধ্যমে প্রতিযোগিরা গবেষণা সেক্টরে তাদের যাত্রা শুরু করছে।