ব্রেকিং নিউজ

চুয়েটে পুরকৌশল বিভাগের আর্ন্তজাতিক কনফারেন্স সম্পন্ন

আতাহার মাসুম তারিফঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) পুরকৌশল (সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং) বিভাগের আয়োজনে পুরকৌশল খাতের অগ্রগতি শীর্ষক তিনদিনব্যাপী ৪র্থ আন্তর্জাতিক কনফারেন্স ‘আইসিএসিই-২০১৮’ (4th International Conference on Advances in Civil Engineering; ICACE-2018)-এর সমাপনী অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়।

বৃহস্পতিবার (২০ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় নগরীর রেডিসন ব্লু চট্টগ্রাম বে ভিউ’র মেজবান হলে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘটে।

পুরকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল আচার্যের উপস্থাপনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মোঃ আব্দুর রহমান ভূঁইয়া ও কনফারেন্সের সায়েন্টিফিক এন্ড টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. আয়শা আখতার। এছাড়াও কনফারেন্সের সায়েন্টিফিক এন্ড টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ার অধ্যাপক ড. মোঃ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানটি সঞ্চালিত হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কনফারেন্সের সায়েন্টিফিক এন্ড টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য সচিব অধ্যাপক ড. আয়শা আখতার। এছাড়াও আরো বক্তব্য রাখেন জাপানের ‘ইউনিভার্সিটি অফ সুকুবা’র অধ্যাপক ড. তাকাশি মাতসুশিমা (Prof. Dr. Takashi Matsushima),মালেয়শিয়ার ‘মারা ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি’র অধ্যাপক ড. ওয়েই কুন লী (Dr. Wei Koon Lee), জাপানের কোর টেক কোম্পানি লিমিটেডের আমন্ত্রিত বক্তা জনাব জাভিয়ের লোপেজ গিমেনেজ (Javier Lopez Gimenez),কনফিডেন্স সিমেন্ট লিমিটেডের মহাব্যবস্থাপক জনাব জহির উদ্দিন আহমেদ, জিপিএইচ ইস্পাত লিমিটেডের অতিরিক্ত মহাব্যবস্থাপক জনাব মোহাম্মদ আলমাস শিমুল এবং বাংলাদেশ সড়ক ও জনপদ বিভাগের প্রকৌশলী আবু সালেহ মোঃ নুরুজ্জামান।

প্রধান অতিথির ব্ক্তব্যে চুয়েটের উপাচার্য বলেন, যে কোন উন্নয়ন কাজকে টেকসই,পরিবেশবান্ধব ও সাশ্রয়ী করতে সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের মূখ্য ভূমিকা পালন করতে হবে এবং আমি মনে করি এ ধরণের আন্তর্জাতিক কনফারেন্স সিভিল ইঞ্জিনিয়ারদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে।

এবারের কনফারেন্সে বাংলাদেশসহ ১০টি দেশের অন্তত কয়েকশত শিক্ষক, গবেষক, বিজ্ঞানী, প্রফেশনাল এবং উদ্যোক্তাগণ অংশগ্রহণ করেন। এতে পুরকৌশল সম্পর্কিত ৬টি যন্ত্রকৌশল বিষয়ে মোট ২৩ টি সেশনে ১৮৭ টি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। একইসঙ্গে চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা,পানি নিষ্কাশন,ভূমিকম্প,যোগাযোগ ও পরিবহণ ব্যবস্থা,টেকসই নির্মাণ প্রকৌশলসহ বিভিন্ন জনগুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলোর উপর গুরুত্বারোপ করা হয়।

তারিখ-২১.১২.২০১৮