ব্রেকিং নিউজ

চুয়েটে উচ্চশিক্ষায় পিটিই পরীক্ষার প্রয়োজনীয়তা বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্কঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) পিয়ারসন টেস্ট অফ ইংলিশ (পিটিই) শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৩রা মার্চ(মঙ্গলবার) বিশ্ববিদ্যালয়ের পেট্রোলিয়াম ও মাইনিং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সেমিনার কক্ষে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। বিকাল ৪টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত চলা এই সেমিনারে চুয়েটের বিভিন্ন ব্যাচের প্রায় অর্ধ – শতাধিক শিক্ষার্থী অংশ নেয়।

চুয়েট ক্যারিয়ার ক্লাব কর্তৃক আয়োজিত এ সেমিনারে সেমিনারের শুরুতে অষ্ট্রেলিয়া থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে স্বাগত বক্তব্য দেন, ইউনিভার্সিটি অফ নিউ সাউথ ওয়েলস্ এর পিএইচডি গবেষক সাইয়্যিদুল মোরসালিন, যিনি চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী।  এছাড়া কি-নোট স্পিকার হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অস্ট্রেলিয়ার আলব্রাইট ইনস্টিটিউট অফ বিসনেস অ্যান্ড ল্যাংগুয়েজ, সিডনি এর ক্যাম্পাস ম্যানেজার ও পিটিই স্টাডি সেন্টার সিডনি এর বিজনেস ম্যানেজার মোহাম্মদ রাশেদুল আলম খান।

সেমিনারে উচ্চ শিক্ষার যাবতীয় বিষয় ও উচ্চ শিক্ষার জন্য একজন শিক্ষার্থী কিভাবে খুব সহজে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড,আয়ারল্যান্ড, যুক্তরাজ্য ও কানাডাসহ বহির্বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শিক্ষা লাভ করার জন্য যেতে পারবে সেসব বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়। যেমনঃ  PTE কি,  IELTS না দিয়ে PTE কেন দিতে হবে,  PTE IELTS এর চেয়ে কতটা সহজ, ইঞ্জিনিয়ারদের জন্য PTE তে খুব ভালো স্কোর করা IELTS এর চেয়ে অনেক সহজ হওয়ার কারণ, মাত্র ২-৩ সপ্তাহের প্রস্তুতির মাধ্যমেই PTE তে IELTS 7.5 সমমানের স্কোর তোলার উপায় ইত্যাদি বিষয়।

সেমিনারে উপস্থিত ছিলেন মেকাট্রনিকস এন্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রভাষক আবদুর রহমান কাকন এবং সিইএসইআর(CESER) এর গবেষণা প্রভাষক মোঃ আরিফ হোসেন।

চুয়েট ক্যারিয়ার ক্লাবের চিফ মডারেটর এবং পিএমই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক জনাব মোঃ জায়েদ বিন সুলতানের সমাপনী বক্তব্যের মাধ্যমে সেমিনারের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

আয়োজিত অনুষ্ঠানের মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল  চুয়েটনিউজ২৪.কম।

উল্লেখ্যঃ পিয়ারসন টেস্ট অব ইংলিশ (পিটিই) এটি একটি সম্পূর্ণরূপে কম্পিউটার নিয়ন্ত্রিত এবং পক্ষপাতমুক্ত ইংরেজি ভাষা পরীক্ষা। এর মাধ্যমে ইংরেজি ভাষার দক্ষতা সঠিকভাবে পরিমাপ করা হয়। বিদেশে উচ্চ শিক্ষা, প্রফেশনাল ও সরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি এবং অভিবাসনের আবেদন করতে এ টেস্টের স্কোর ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বর্তমানে আইইএলটিএস এর বিকল্প হিসেবে পিয়ারসন ইংলিশ টেস্ট ধীরে ধীরে অনেক জনপ্রিয়তা পাচ্ছে।