ব্রেকিং নিউজ

চুয়েটের চতুর্থ সমাবর্তন আজ

চুয়েটনিউজ২৪ডেস্কঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) ৪র্থ সমাবর্তন আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। গতকাল দুপুর থেকেই সাবেক শিক্ষার্থীদের পদচারণয় মুখরিত ছিল বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণ।

এবারের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ২০১২ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক সম্পন্ন করা ২ হাজার ১৪৮ জন এবং স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করা ৮৩ জন সহ মোট প্রায় ২ হাজার ২৩১ জন ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সমাবর্তন ডিগ্রী প্রদান করা হবে। এর মধ্যে চারজন পাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয় স্বর্ণপদক।

তারা হলেন- ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষে পাসকৃত তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক কৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী ই.এম.কে. ইকবাল আহামেদ,একই বিভাগের ২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষে পাসকৃত শিক্ষার্থী রুবায়া আবসার, ২০১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষে পাসকৃত শিক্ষার্থী সঞ্চয় বড়ুয়া এবং ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে পাসকৃত কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের শিক্ষার্থী মোঃ রাশেদুর রহমান ।

আজ দুপুর দুইটা থেকে অতিথিরা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে নির্মিত সমাবর্তন মঞ্চে আসন গ্রহণ করবে। এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি এবং চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মোঃ আবদুল হামিদ। এতে সমাবর্তন বক্তা হিসেবে থাকবেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সাবেক সভাপতি অধ্যাপক ড. এ.কে.আজাদ চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, এম.পি, মাননীয় শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী,এম.পি এবং বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের সভাপতি অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ।সমাবর্তন অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখবেন চুয়েটের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম।
অনুষ্ঠানের সভাপতি রাষ্ট্রপতি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য মোঃ আবদুল হামিদ এবং গ্র্যাজুয়েটদের বরণ করে নিতে বিশ্ববিদ্যালয়কে কয়েকদিন আগে থেকেই বর্ণিল রূপে সাজিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। চুয়েটের একাডেমিক ভবন, ক্যাম্পাস এবং অভ্যন্তরীণ সড়কগুলো শোভাবর্ধনের কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে।

এছাড়া সমাবর্তন ঘিরে ক্যাম্পাসে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে। এসএসএফ (স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স), পুলিশ, র‍্যাব, গোয়েন্দা বাহিনীসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা সর্তক অবস্থানে রয়েছেন। কোনো ধরনের বহিরাগতদের প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায় দুপুর ১২ টার পর থেকে রাষ্ট্রপতি ক্যাম্পাস প্রস্থান পর্যন্ত আবাসিক হলগুলোর ফটক বন্ধ থাকবে। এ সময় শিক্ষার্থীদের হলে অবস্থান করতে হবে।

এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক মোঃ. মশিউল হক বলেন, অতিথিদের জন্য পুরো বিশ্ববিদ্যালয় জুড়ে আমরা নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছি। সমাবর্তন অনুষ্ঠান নির্বিঘ্ন করার জন্য সকল ধরনের প্রস্ততি এবং মহড়া সম্পন্ন করা হয়েছে। আজ সকাল থেকে এসএসএফ (স্পেশাল সিকিউরিটি ফোঁস) সহ অন্যান্য বাহিনীর সাথে প্রায় ১৪০০ পুলিশ মোতায়েন আছে। একটি সুষ্ঠু সুন্দর সমাবর্তন আয়োজন করতে আমরা দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।

উল্লেখ্য আগামীকাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সুবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠিত হবে।

তারিখঃ ০৫-১২-১৯