ব্রেকিং নিউজ

এখন ঘরে বসেই GRE এক্সাম!

করোনা ভাইরাসের কারণে ঘরে বসেই দিতে পারবেন GRE এক্সাম! কেমন হবে সেই এক্সাম ?
আসুন জেনে নেই…
.
ইকুইপমেন্টঃ
#অবশ্যই উইন্ডোজ ১০, ৮ ,৭ এর ডেস্কটপ অথবা লেপটপ। এর বাইরে হওয়া যাবেনা।
# ‘ETS Test Browser’ নামের সফটয়্যার ডাউনলোড করতে হবে। (https://ibt2-cdn.ets.org/…/Un…/0.1/UnifyRPInstaller_PROD.exe)
# ‘ProctorU System Check’ সফটয়্যার ইন্সটল দিতে হবে। (https://test-it-out.proctoru.com/)
# একটা এক্সটার্নাল মাইক্রোফোন থাকতে হবে যেটা অবশ্যই কোন হেডসেটের অংশ হতে পারবেনা। এর মাধ্যমে আপনি প্রক্টরের সাথে কমিউনিকেট করবেন।
# একটা বিল্ট ইন অথবা সেপারেট ক্যামেরা থাকতে হবে। ক্যামেরা অবশ্যই রুমের ৩৬০ ডিগ্রী ভিউ দিতে পারে এমন হতে হবে। সাথে টেবিলের উপরও দেখা যেতে হবে।
.
প্রাইভেসিঃ
# রুমে আপনি একা থাকবেন। টেস্টের সময় কেউ রুমে প্রবেশ করতে পারবেনা। পার্ক, ক্যাফে ইত্যাদি পাবলিক প্লেসে এক্সাম দেয়া যাবেনা।
#কম্পিউটার, কিবোর্ড ইত্যাদি ডেস্কের উপর থাকবে।টেবিলের উপর এমন কোন আইটেম থাকবেনা যা  নিয়ম বহির্ভূত।
# বিছানায় শুয়ে বা বালিশে হেলান দিয়ে এক্সাম দেয়া যাবেনা।
#খাবার দাবার কিছুই পাশে রাখা যাবেনা।
#কোন প্রকার রেকর্ডিং ডিভাইস কোনক্রমেই পাশে রাখা যাবেনা।

#আপনার মুখমন্ডল পুরোপুরি দেখা যেতে হবে। সানগ্লাস বা অন্য কিছু দিয়ে ঢাকা যাবেনা।
.
পোশাকঃ
#স্ট্যান্ডার্ড পোশাক পরতে হবে। এক্ষেত্রে ফর্মাল ড্রেস মান সম্মত হতে পারে।  কান খোলা রাখতে হবে।কাপড় বা স্কার্ফ দিয়ে ঢেকে রাখা যাবেনা। মনে রাখবেন, আপনার ছবিসহ স্কোর বিশ্ববিদ্যালয় দেখতে পারবে।
#যেকোন প্রকার জুয়েলারি, ক্লিপ, বেন্ড ইত্যাদি নিষিদ্ধ।
.
নোট টেকিং ম্যাটেরিয়ালঃ
#কোন কাগজে নোট নিতে পারবেন না।
#এজন্য আপনি হোয়াইট বোর্ড ও ইরেজেবল মার্কার ব্যবহার করতে পারবেন। অথবা ট্রান্সপারেন্ট শীট ব্যবহার করতে পারেন।
# টেস্ট শেষে সব নোট অবশ্যই মুছে ফেলতে বলা হবে।
.
ভিডিও ও অনলাইন মনিটরিংঃ
#পুরো পরীক্ষার সময় একজন সত্যিকারের জ্যান্ত মানুষ প্রক্টর হিসেবে আপনাকে ও আপনার কম্পিউটার সরাসরি ভিডিও কলে মনিটর করবেন।
# পুরো টেস্ট সেশন রেকর্ড করা হবে এবং ছবিও তোলা হবে। ছবিগুলো ইটিএস ডাটা ম্যানেজারে আপ্লোড করা হবে এবং স্কোরের সাথে ছবিগুলোও এভেইলেবল থাকবে যেগুলো এডমিশন পারপাসে স্কোর পাঠানো ইউনিভার্সিটিগুলো দেখতে পারবে।
.
এক্সাম শুরুর আগেঃ
#এপয়েন্টেড টাইমে আপনাকে ProctorU একাউন্টে লগ ইন করতে হবে। চেক ইনের জন্য শিডিউল টাইমের পর থেকে ১৫ মিনিট সময় দেয়া হবে। এই সময়ের মধ্যে চেক ইন সম্পন্ন করতে না পারলে টেস্ট ক্যান্সেল হবে এবং আপনার টাকা রিফান্ড করা হবেনা!!
#চেক ইন সম্পন্ন হলে ‘start session’ চাপতে হবে।
#অতঃপর আপনার আইডি প্রক্টরকে দেখাতে হবে।  প্রক্টর এক্সাম রুল আপনাকে ব্রিফ করবেন এবং মনিটরিং এর জন্য কম্পিউটার স্ক্রিনে তার একসেস দেয়ার জন্য বলবেন।
#এক্ষেত্রে প্রক্টর আপনাকে একটা আয়না অথবা মুবাইল দিয়ে কম্পিউটার স্ক্রিন দেখাতে বলবেন।
# প্রক্টর সাহেব অনুমতি দেয়ার পর আপনি ইটিএস সিকিউর ওয়েব ব্রাউজার ওপেন করবেন।টেস্ট একসেসের জন্য উনিই আপনাকে পাসওয়ার্ড দিবেন ।
.
টেস্টের সময় যা খেয়াল করবেনঃ
#আপনাকে অবশ্যই ক্যামেরায় দেখা যেতে হবে। কোন প্রকার সন্দেহজনক নড়াচড়া আপনার এক্সামকে ইনভ্যালিড করে দিতে পারে।
#মুবাইল, নোট, বই সাথে রাখা যাবেনা।
#কারো সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা যাবেনা।
#মাঝখানে ১০ মিনিটের বিরতিতেই শুধুমাত্র উঠা যাবে, এছাড়া কোনভাবেই সিট ছেড়ে যাওয়া যাবেনা। ১০ মিনিটের ভেতরে ফিরে না আসলে আপনার পরীক্ষা বাতিল বলে গণ্য হবে।
এই ছিল মুটামুটি Home GRE exam এর বিস্তারিত। পুরোটা পড়তে এই সাইটে ঘুরে আসুন- https://www.ets.org/s/cv/gre/at-home/

তবে এক্সাম চলাকালীন সময়  বিদ্যুৎ চলে গেলে বা অন্য কোন যান্ত্রিক সমস্যা দেখা দিলে কি ব্যবস্থা নেয়া হবে এ নিয়ে এখনো প্রশ্ন থেকে যায়। আশা করা যায় শীঘ্রই এসব প্রশ্নের সমাধান পাওয়া যাবে।

 

লিখেছেনঃ

সৈয়দ তাহমিদ হোসেন

সাবেক সভাপতি, চুয়েট সাংবাদিক সমিতি