ব্রেকিং নিউজ

অক্সিজেন মোড়ে চুয়েট শিক্ষার্থীদের উপর স্থানীয়দের হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন

23756286_1164023780396592_1126651342_n

চুয়েটনিউজ২৪ ডেস্কঃ

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (চুয়েট) শিক্ষার্থীদের সাথে নগরীর অক্সিজেন মোড়ে স্থানীয়দের সংঘর্ষে তিন চুয়েট শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। এছাড়াও এতে চট্টগ্রাম জেলা ট্রাক ও কভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যকরী সভাপতি আবদুর নবী লেদু এবং তার কয়েকজন অনুসারী আহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। হামলার প্রতিবাদে এবং সড়কে নিরাপত্তার দাবিতে চুয়েটে মানববন্ধন করেছেন শিক্ষার্থীরা।

এই ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীদের সূত্রে জানা যায়, রোববার রাত সাড়ে নয়টায় ক্যাম্পাসগামী চুয়েটের বাসগুলো অক্সিজেন মোড় পার হবার সময় কর্ণফুলী বাসের হেলপারের সাথে স্থানীয় এক যুবকের কথা কাটাকাটি হয়। এর প্রেক্ষিতে যুবকটি কর্ণফুলী বাসের হেলপারকে বাস থেকে নামিয়ে নেয় এবং কয়েকজন সঙ্গীসহ মারধর করে। এসময় হাতাহাতিতে একজন চুয়েট শিক্ষার্থীও আঘাতপ্রাপ্ত হন। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে ক্যাম্পাসগামী তিনটি বাসের শিক্ষার্থীরা অক্সিজেন মোড়ের বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে অবস্থা নেয়। এতে বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

পরে রাত পৌনে এগারটার দিকে চুয়েটের পুরকৌশল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শ্যামল আচার্য এবং এমআইই বিভাগের প্রভাষক হুমায়ুন কবির ঘটনাস্থলে গিয়ে পৌছান। তারা চুয়েটের কয়েকজন শিক্ষার্থী এবং বায়জিদ থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে স্থানীয়দের সাথে ঘটনার মীমাংসা করতে বৈঠকে বসেন। এই ব্যাপারে এমআইই বিভাগের প্রভাষক হুমায়ুন কবির বলেন, বৈঠকে হামলার প্রেক্ষিতে থানায় জিডি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় এবং আমাদের অনুরোধে শিক্ষার্থীরা তাদের ব্যারিকেড খুলে দেয়। পরে শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে ফিরে যাবার প্রাক্কালে আবদুর নবী লেদু এসে শিক্ষার্থীদের সাথে দুর্ব্যবহার করেন । একপর্যায়ে চুয়েটের শিক্ষার্থীদের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এর প্রেক্ষিতে স্থানীয়দের সাথে আবারও চুয়েট শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ হয়। এতে চুয়েটের তিন শিক্ষার্থী আহত হয় । সংঘর্ষের পরিপ্রেক্ষিতে বায়জিদ থানার পুলিশ এসে ঘটনাস্থলের নিয়ন্ত্রণ নেয় এবং চুয়েট শিক্ষার্থীদের আমরা ক্যাম্পাসে ফেরত পাঠাই ।

এদিকে চুয়েট বাসে হামলার আশঙ্কায় গতকাল সোমবার কোন বাস শহরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় নি এবং হামলার প্রতিবাদে এদিন ক্লাস বর্জন করেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। পাশাপাশি বেলা ১২টায় বাসে চলাচলের নিরাপত্তার দাবিতে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রশাসনিক ভবনের সামনে মানববন্ধন করেন। পরে বেলা ১ টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক এবং উপ-ছাত্রকল্যাণ পরিচালক মানববন্ধনরত শিক্ষার্থীদের সাথে কথা বলেন। তারা এই ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার আশ্বাস দিলে শিক্ষার্থীরা হলে ফিরে যান।

এই ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকল্যাণ পরিচালক অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক বলেন, শিক্ষার্থীদের উপর হামলার ব্যাপারটি খুবই দুঃখজনক এবং এতে চুয়েটের তিন শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। শিক্ষার্থীদের চলাচলে যেন কোনরকম ঝামেলা না হয় সেজন্য আমরা চট্টগ্রাম জেলা পুলিশ এবং চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের সাথে আলোচনা করে স্থানীয়দের সাথে সমঝোতার চেষ্টা করছি। এর আগ পর্যন্ত নিরাপত্তার স্বার্থে অক্সিজেন মোড় দিয়ে চুয়েট বাস চলাচল বন্ধ থাকবে।

তারিখঃ ২০/১১/২০১৭ ইং